আজ ৯ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, মঙ্গলবার,২৪শে নভেম্বর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ

ডিবি ওসির হাতে ফেনী প্রেস ক্লাবের কোষাধ্যক্ষ লাঞ্ছিত

Share

নিজস্ব প্রতিবেদক: ফেনী গোয়েন্দা পুলিশের ওসি এএনএম নুরুজ্জামানের হাতে লাঞ্ছিত হয়েছেন ফেনী প্রেস ক্লাবের কোষাধ্যক্ষ সাংবাদিক শাহাদাত হোসাইন। তিনি ইংরেজি দৈনিক “দি এশিয়ান এইজ, দেশকাল ও প্রতিদিনের সংবাদ-এর ফেনী জেলা প্রতিনিধি। এছাড়া তিনি আজকের ফেনী ও সময়ের বাংলাদেশ নামে ২টি অনলাইন পত্রিকার সম্পাদক ও প্রকাশক। এদিকে ডিবি ওসি কর্তৃক সাংবাদিক নেতাকে লাঞ্ছিত করার ঘটনায় ফেনী প্রেস ক্লাব নেতৃবৃন্দসহ বিভিন্ন সাংবাদিক সংগঠন ও সংবাদকর্মীরা নিন্দা জ্ঞাপন করেছেন।
এ বিষয়ে প্রতিকার পেতে লাঞ্ছিত সাংবাদিক বাদী হয়ে পুলিশের সর্বোচ্চ পর্যায়ে ডিবি ওসি নুরুজ্জামানের বিরুদ্ধে লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন।
ঘটনার বিবরণে জানা যায়, সংবাদ সংক্রান্ত বিষয়ে সাংবাদিক শাহাদাত হোসাইনের সাথে ওসি নুরুজ্জামানের পূর্বেই মনোমালিন্য হয়। ফলে ঘটনার দিন তুচ্ছ বিষয়কে কেন্দ্র করে ওসি নুরুজ্জামান তাকে লাঞ্ছিত করেন। মঙ্গলবার (১০ নভেম্বর) দুপুর দেড়টার দিকে নিউজ সংক্রান্ত কাজে পুলিশ সুপারের কার্যালয়ে যান শাহাদাত হোসাইন। এসময় সেখানে তার সাথে দেখা হয় মফস্বল সাংবাদিক ফোরাম ফেনীর সহ-সভাপতি সাহেদ চৌধুরীর সাথে। একপর্যায়ে দু’জন মিলে ডিবি ওসির রুমে যান।
ডিবি ওসি নুরুজ্জামান কোর্ট পরিদর্শক ও ডিবির সেকেন্ড অফিসারের সাথে গোপন কথায় ব্যস্ত ছিলেন। ফলে ২ সাংবাদিক কুশল বিনিময় করে তার রুম থেকে বের হয়ে যান। ডিবি কার্যালয় থেকে বের হবার পথে উপ-পরিদর্শকদের রুমে পরিচিত এক যুবককে দেখে সাহেদ কথা বলার জন্য ভিতরে প্রবেশ করেন। বিনা অনুমতিতে ঐ যুবকের সাথে কথা বলায় সাহেদকে ধমকাতে থাকেন এক ডিবি কর্মকর্তা। এসময় শাহাদাত হোসাইন রুমে প্রবেশ করে ডিবি অফিসারকে সমর্থন জানিয়ে সাহেদকে অফিসারের অনুমতি নিয়ে কথা বলতে বলেন।
কথা শেষ না হতেই ডিবির ওসি নুরুজ্জামান দরজা থেকে অশোভন ভাষায় গালাগাল করে রুমে প্রবেশ করে ২ জনকে টেনে হেঁচড়ে বাইরে নিয়ে আসেন। এসময় আটক যুবকের সাথে কথা বলায় তার প্রাইভেসি নষ্ট হয়েছে বলতে বলতে ২ জনকে ধাক্কা মেরে রুমে নিয়ে আটকে রাখেন। একপর্যায়ে এক এসআই শাহাদাত হোসাইনের কাঁধ থেকে ব্যাগ ও হাত থেকে ২টি মোবাইল ছিনিয়ে নেন। এসময় নুরুজ্জামান চিৎকার করে বলতে থাকেন প্রাইভেসি নষ্ট করার অপরাধে আমি ২ জনকে মিথ্যা মামলায় জড়িয়ে চালান দিবো। ওদেরকে আটকে রাখো। একপর্যায়ে তিনি যাদের দ্বারা প্রভাবিত হয়ে এ কাজ করেছেন তাদের ফোন করেন। এসময় মফস্বল সাংবাদিক ফোরামের একজন গেলে আমরা তার প্রাইভেসি নষ্ট করেছি, আমাদের বিরুদ্ধে তার কোন অভিযোগ নেই বলে জানান। আমরা রুম থেকে বের হবার পথে ফেনী প্রেস ক্লাবের সভাপতি জসিম মাহমুদসহ আরো কয়েকজন রুমে প্রবেশ করেন। তাদেরকেও তিনি অভিন্ন কথা বলেন। প্রাইভেসি নষ্ট করায় তিনি ক্ষুব্ধ হয়েছেন, আমাদের বিরুদ্ধে তার কোন অভিযোগ নেই বলে উপস্থিত সবাইকে অবহিত করেন। এদিকে ২ সাংবাদিকের সাথে এমন আচরণে ফেনীর বিভিন্ন মহলে নিন্দার ঝড় বইছে। ডিবি ওসির এমন আচরণে সবাই তীব্র নিন্দা ও ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

     More News Of This Category